• Mar03

    Demo

    Posted by rejabinsharef in

    لك صدقة و لنا هدية (صلي الله عليه وسلم) এই হাদিস থেকে বুঝা যায় যে, রাসূল জানতেন, হাদিয়া প্রদানকৃত জিনিসটি সদকা বা যাকাতের মাল (যা তার জন্য গ্রহণ করা বৈধ নয়।) এমনিভাবে যদি আমিও জানি যে, আমাকে যে হাদিয়াটা দেওয়া হচ্ছে সেটা সুদ-ঘুষের মাল। কারন, হাদিয়া দাতা উদাহরণ স্বরুপ ব্যাংকে চাকরি করে অথবা সুদের ব্যবসা করে। এখন এমন হাদিয়া আমার জন্য গ্রহণ করা জায়েয হবে কিনা?? (অন্যথায় হাদিসের সঠিক মাফহুম কি??) দয়া করে তাকওয়ার দৃষ্টিতে নয়, মাসআলার দৃষ্টিতে (যেমনঃ জায়েয-নাজায়েয,বৈধ-অবৈধ,হালাল-হারাম) জানিয়ে বাধিত করবেন।


    সুদ-ঘুষের মাল থেকে হাদিয়া গ্রহণ করা বৈধ নয়। কারণ হাদিয়া প্রদানকারী নিজেই সেই টাকার মালিক নন। তাই অন্যকে এর মালিক বানাবেন কিভাবে? এই জাতীয় টাকার ব্যাপারে শরয়ী বিধান হলো প্রকৃত মালিকের সন্ধান জানা থাকলে তার কাছে পৌঁছে দিতে হবে, অন্যথায়  সওয়াবের নিয়ত ছাড়া সদকা করে দিতে হবে। তাই সুদ-ঘুষের টাকা  দ্বারা হাদিয়া দেয়া-নেয়া উভয়টিই নাজায়েয এবং গোনাহ। আর জেনে বুঝে এমন করলে তো এর গোনাহের মাত্রা আরো বেশী হবে। প্রশ্নে আপনার উল্লেখ কৃত হাদীস যে, হযরত বারীরা রা. এর কাছে বিদ্যমান বস্তুটি সদকার মাল হওয়া পূর্ব থেকেই জানা থাকা কিংবা পরে জানতে পারা বিধান গত দিক থেকে এই দুইয়ের মাঝে কোন পার্থক্য নেই। কারন হযরত বারীরা রা. যাকাত গ্রহণের উপযুক্ত ছিলেন। তাই গ্রহণের সংগে সংগে তিনি সেটির মালিক হয়ে গেছেন। এখন তিনি সেটি যাকেই দিবেন তা হাদিয়া হিসাবে গণ্য হবে -যা খাওয়া হাদিয়া গ্রহিতার জন্য সম্পূর্ন হালাল। এজন্য রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন- ‘হে বারীরা তোমার জন্য সদকা, কিন্তু আমাদের জন্য হাদিয়া’। তাই এটাকে সুদ-ঘুষের টাকা থেকে প্রদেয় হাদিয়া গ্রহণের জন্য বৈধতার দলিল বানানো যাবেনা।

    كذا في المحيط البرهانى8/73:

    رجل اهدي الى انسان واضافه˛ان كان غالب ماله من الحرام فلا ينبغي ان يقبل ويأكل من طعامه ما لم يخبر ان ذالك المال حلال استقرضه أو ورثه ان كان غالب ماله من حلال فلا بأس بأن يقبل ما لم يتبين له ان ذالك من الحرام.

     وراجع أيضًا: مسند احمد رقم الحديث3809˛ الفتاوى الهندية5/343˛ فتاوى قاضي خان3/301˛ رد المحتار (طبع سعيد) 6/423 و2/342˛ فتاوى رحيمية3/260˛ وﺁﭖﮐﮯ مسائل اور ان ﮐﺎ حل7/228˛ فتاوي محمودية 25/479. فقط والله اعلم بالصواب


  • জামিয়ার সংবাদ


    প্রবন্ধ-নিবন্ধ


    সকল প্রশ্ন উত্তর


    প্রশ্ন করুণ


    আপনার প্রশ্নটি লিখুন এবং আমাদের কাছে পাঠান

    প্রশ্নের উত্তর ১০-১৫ দিনের মধ্যে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। সে পর্যন্ত ধৈর্য সহকারে অপেক্ষা করার অনুরোধ রইল।

    উত্তর দ্রুত পাওয়ার জন্য এই নাম্বারে যোগাযোগ করুন : Call to contact us : +8801935477080